শনিবার l ২২শে জানুয়ারি, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ l ৮ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ l১৯শে জমাদিউস সানি, ১৪৪৩ হিজরি
উল্লাপাড়ায় বোরো ধান আবাদ শুরু - Daily Ajker Sirajganj
শিরোনাম:
দুই এমপি করোনায় আক্রান্ত শাহজাদপুরের বাঘাবাড়িতে একটি গ্রাম পুরুষ শূন্য সিরাজগঞ্জে পুরোহিত ও সেবাইতদের দক্ষতা বৃদ্ধি বিষয়ক কর্মশালার উদ্বোধন রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয় আগামি ৬ ফেব্রুয়ারি পযর্ন্ত বন্ধ ফেরদৌস ওয়াহিদ রুশো’র মৃত্যু বার্ষিকী উপলক্ষে শীতার্তদের মাঝে কম্বল বিতরণ রায়গঞ্জের তীব্র শীতে ডিমের দোকানে উপচে পড়া ভিড় রায়গঞ্জে প্রধানমন্ত্রী ঘোষিত প্রণোদনা প্যাকেজের বিশেষ কার্যক্রম উদ্বোধন বেলকুচিতে অসহায়দের মাঝে কম্বল বিতরণ করলেন কাউন্সিলর আলম প্রামাণিক রায়গঞ্জে সাংবাদিক পুত্র সুব্রত কুমার পেলেন চীনের এক্সিলেন্ট স্টুডেন্ট অ্যাওয়ার্ড বেলকুচিতে ডেসওয়া ট্রাস্টের কমিটি গঠন

উল্লাপাড়ায় বোরো ধান আবাদ শুরু

সাহারুল হক সাচ্চু :
সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় কৃষকেরা আগাম করে বোরো (ইরি) ধান আবাদে মাঠে নামতে শুরু করেছেন। বছরের প্রধান আবাদের নানা জাতের বোরো ধান চারা কৃষকেরা লাগাচ্ছেন। উপজেলা কৃষি অফিস সূত্রে, এবারের মৌসুমে উল্লাপাড়া উপজেলায় ৩০ হাজার ২৪০ হেক্টর পরিমাণ জমিতে বোরো ধান আবাদের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে। এরই মধ্যে ২শ ৪০ হেক্টর পরিমাণ জমিতে বোরো ধানের চারা লাগানো হয়েছে। উল্লাপাড়ায় কৃষকেরা বেশী হারে ফলনশীল ব্রি ৮৪, ব্রি ৮৬, ব্রি ৮৯ ,ব্রি ৯২ জাতের ধানসহ নানা জাতের বোরো ধান আবাদ করে থাকেন। এবারেও তাই হবে বলে জানানো হয়। উপজেলার সব ক’টি ইউনিয়নের সব মাঠেই এ ধানের আবাদ করা হয়ে থাকে। উপজেলার সলঙ্গা, রামকৃষ্ণপুর ইউনিয়নের বেশীর ভাগ মাঠে কৃষকেরা রোপা আমন ধানের আবাদ করেছিলেন। মাঠগুলো থেকে সে ধান কাটা প্রায় শেষ হয়ে এসেছে। উপজেলার সলঙ্গা ইউনিয়ন এলাকার বিভিন্ন মাঠে বোরো ধান চারা লাগানো হচ্ছে। এসব মাঠ থেকে সপ্তাহ দুয়েক আগেই রোপা আমন ধান কেটে কৃষকেরা ঘরে তুলেছেন।

এখন বোরো ধান আবাদ করা হচ্ছে। এদিকে উপজেলার উধুনিয়া, বাঙ্গালা, পূর্ণিমাগাঁতী, বড় পাঙ্গাসী, মোহনপুর ইউনিয়ন এলাকার মাঠগুলোয় সরিষা ফসল রয়েছে। কৃষকেরা সরিষা ফসল তুলেই জমিতে বোরো ধান আবাদে চারা লাগাবেন। বোরো ধান আবাদে বেশীর ভাগ কৃষক নিজস্ব বীজতলা করেছেন। অনেক কৃষক বেশী হারে ফলন মেলে এমন উন্নত নতুন নানা জাতের ধানের বীজতলা করেছেন বলে জানা গেছে। উপজেলার সলঙ্গা ইউনিয়নের গোজা মাঠে বোরো ধান আবাদ শুরু হয়েছে। কৃষক রবিউল ইসলামকে প্রায় এক বিঘা পরিমাণ জমিতে নিজস্ব বীজতলার কাটারী ভোগ ধানের চারা লাগাতে দেখা গেছে। প্রতিবেদককে বলেন জমিতে রোপা আমান ধানের কাটার পর সপ্তাহ দুয়েক পতিত রাখা হয়েছিল। এখন আগাম করেই বোরো ধানের আবাদে চারা লাগাচ্ছেন। একই মাঠে আটশো টাকা বিঘা চুক্তিতে মধুপুর গ্রামের দিনমজুর জাহিদুল ইসলাম ধান চারা লাগাতে দেখা গেছে।

তার নিজ গ্রাম এলাকায় আরো দিন দশেক পর থেকে বোরো ধান আবাদ শুরু হবে৷ তখন নিজ এলাকাতেই কাজ করবেন। তিনি একাই এক বিঘা পরিমাণ জমিতে ধান চারা লাগাতে পারেন বলে জানান। উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা সূবর্ণা ইয়াসমিন সুমী বলেন, তার বিভাগ থেকে কৃষকদেরকে এল এল পি পদ্ধতি অর্থাৎ লাইন করে ধান চারা লাগাতে পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে। এ পদ্ধতিতে বোরো ধান চারা লাগানো হলে ফসলটির আবাদে কৃষকদের সব দিক থেকেই উপকার মেলে।

© All rights reserved © 2017 Dailyajkersirajgonj.com

Desing & Developed BY লিমন কবির