রবিবার l ২৩শে জানুয়ারি, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ l ৯ই মাঘ, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ l২০শে জমাদিউস সানি, ১৪৪৩ হিজরি
কামারখন্দে ফুটপাতে শীতের ভাবা পিঠার ধুম - Daily Ajker Sirajganj
শিরোনাম:
দুই এমপি করোনায় আক্রান্ত শাহজাদপুরের বাঘাবাড়িতে একটি গ্রাম পুরুষ শূন্য সিরাজগঞ্জে পুরোহিত ও সেবাইতদের দক্ষতা বৃদ্ধি বিষয়ক কর্মশালার উদ্বোধন রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয় আগামি ৬ ফেব্রুয়ারি পযর্ন্ত বন্ধ ফেরদৌস ওয়াহিদ রুশো’র মৃত্যু বার্ষিকী উপলক্ষে শীতার্তদের মাঝে কম্বল বিতরণ রায়গঞ্জের তীব্র শীতে ডিমের দোকানে উপচে পড়া ভিড় রায়গঞ্জে প্রধানমন্ত্রী ঘোষিত প্রণোদনা প্যাকেজের বিশেষ কার্যক্রম উদ্বোধন বেলকুচিতে অসহায়দের মাঝে কম্বল বিতরণ করলেন কাউন্সিলর আলম প্রামাণিক রায়গঞ্জে সাংবাদিক পুত্র সুব্রত কুমার পেলেন চীনের এক্সিলেন্ট স্টুডেন্ট অ্যাওয়ার্ড বেলকুচিতে ডেসওয়া ট্রাস্টের কমিটি গঠন

কামারখন্দে ফুটপাতে শীতের ভাবা পিঠার ধুম

নিজস্ব প্রতিবেদক :
শীতের সকালে চাদর জরিয়ে রাস্তায় বেরিয়ে ভাবা পিঠার চলছে ধুম। গ্রাম অঞ্চলের শীতে প্রতিটি বাড়ি বাড়ি হয় নবান্ন, শীতের সকালে সবাইকে সাথে নিয়ে ভাবা পিঠার চলে পাল্লা দিয়ে, কে কতটা পিঠা খেতে পারে। সিরাজগঞ্জ কামারখন্দ উপজেলায় বিভিন্ন রাস্তার মোড়ে মোড়ে হাট-বাজারে জমে উঠেছে ফুটপাতে ভাবা পিঠা বিক্রির ধুম। শীতের সকালে কুয়াশা, সন্ধ্যায় হিমেল বাতাশে ভাবা পিঠার গরম আর সুগন্ধি ছোঁয়ায় মন আনচান করে। সরষে বা ধনেপাতা বাটা অথবা শুঁটকির ভর্তা মাখিয়ে চিতই পিঠা মুখে দিলে কান গরম হয়ে শীত পালায়।

পিঠা প্রেমী মানুষ গুলো শীতের সকালে বা সন্ধ্যায় পিঠার স্বাদ গ্রহন করতে ভির জমাচ্ছে। সন্ধ্যার পর অফিস, ব্যবসা প্রতিষ্ঠান, দোকান, ক্লাব গুলোতে পিঠার আয়োজন লক্ষ করা যাচ্ছে তাদের আড্ডায়। তবে এসব পিঠার প্রতি বেশি চাহিদা লক্ষ করা যায়, রিকশা চালক, অটোভ্যান চালক, এবং বিভিন্ন পেশার শ্রমিকদের। কাজ শেষে পরিবারের জন্য পিঠা কিনে নিয়ে যাচ্ছে। উপজেলার বিভিন্ন জায়গায় গড়ে উঠেছে ফুটপাতে এসব পিঠার দোকান। উপজেলার, জামতৈল, বড়ধুল, পাইকোশা, স্বল্প মাহমুদপুর, ধামকোল ইত্যাদি এসব গ্রাম ঘুরে দেখা গেছে বিভিন্ন মোড়ে হাট-বাজারে গড়ে উঠেছে দোকান।

এসব পিঠার দোকানে শীতের সকালে ভিড় জমাচ্ছে শিশু কিশোর, সকল শ্রেনীর মানুষ। কথা বললে নয়া শতাব্দীকে কয়েকজন পিঠা বিক্রেতা জানান, শীতের সকালে আমরা ভাবা, চেতই পিঠা বানিয়ে বিক্রি করি। আমাদের বাড়িতেত আর প্রতিদিনি নবান্ন উৎসব করা সম্ভব না তাই আমরা ফুটপাতে বিক্রি করে থাকি। এতে সকালে ছোট ছোট ছেলে-মেয়ে সহ সকলেই এসে পিঠা খেতে পারে প্রতিদিন। আমরা পিঠা গুলোর মধ্যে তৈরি করে থাকি, ভাবা পিঠা, চেতই পিঠা, সবজি পিঠাসহ নানান রকমের পিঠা।

 

আজকের সিরাজগঞ্জ / মুক্তা পারভীন

© All rights reserved © 2017 Dailyajkersirajgonj.com

Desing & Developed BY লিমন কবির